Home আন্তর্জাতিক আদালতে চলছে গাঁজার মামলা, এদিকে ইঁদুরই খেল ৫০০ কেজি গাঁজা! প্রমাণ চাইল...

আদালতে চলছে গাঁজার মামলা, এদিকে ইঁদুরই খেল ৫০০ কেজি গাঁজা! প্রমাণ চাইল আদালত

179

আদালতে চলছে গাঁজার মামলা, এদিকে ইঁদুরই খেল ৫০০ কেজি গাঁজা! প্রমাণ চাইল আদালত

পুলিশেরই এ রকমই অদ্ভুত দাবিতে অবাক আদালত। ইঁদুরই যে গাঁজা খেয়েছে তার প্রমাণ দিতে ওই জেলার পুলিশকে নির্দেশও দিয়েছে আদালত।

বছর দুয়েক আগে লরি ভর্তি গাঁজা আটক করেছিল পুলিশ। সেই সংক্রান্ত মামলা চলছে আদালতে। আদালত পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছিল আটক করা গাঁজা আদালতে পেশ করতে। কিন্তু এই নির্দেশের প্রেক্ষিতে পুলিশ জানিয়েছে থানার গুদামঘরে রাখা প্রায় ৫০০ কেজি গাঁজা খেয়ে নিয়েছে ইঁদুর। পুলিশেরই এ রকমই অদ্ভুত দাবিতে অবাক আদালত। ইঁদুরই যে গাঁজা খেয়েছে তার প্রমাণ দিতে ওই জেলার পুলিশকে নির্দেশও দিয়েছে আদালত। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশের মথুরায়। সেখানকার শেরগড় এবং হাইওয়ে থানার মালখানায় এ রকম ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করেছে পুলিশ।

ওই গাঁজা আটকে এনডিপিএ আইনে মামলা চলছিল। সেই মামলার সময়ই সরকারি আইনজীবী রণবীর সিং আদালতে বলে, “শেরগড় এবং হাইওয়ে থানার স্টেশন হাউস অফিসার দাবি করেছেন মালখানায় রাখা ৫৮১ কেজি গাঁজা খেয়ে নিয়েছে ইঁদুর। ওই মালখানায় এত ইঁদুরের অত্যাচার যে সেখানে আটক করা জিনিস রক্ষা করা সম্ভব হয়নি। এই দাবির সপক্ষে প্রমাণ চেয়েছে আদালত। পরবর্তী শুনানি ২৬ নভেম্বর সেই প্রমাণ জমা দিতে হবে আদালতে।” ইঁদুরের গাঁজা নষ্ট করার দাবি শুনে মথুরার সহকারি পুলিশ সুপারকে ইঁদুরের দৌরাত্ম্য থেকে জিনিস রক্ষা করার জন্য ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেয়। ৫৮১ কেজি গাঁজা নষ্টের যে দাবি করা হয়েছে, তার মূল্য প্রায় ৬০ লক্ষ টাকা। ওই আটক করা গাঁজার অকশন/ডিসপোজ করার জন্য পাঁচ দফা নির্দেশও দিয়েছে আদালত। বিষয়টি নিয়ে মথুরার সহকারি পুলিশ সুপার মাতন্ড পি সিং জানিয়েছেন, আদালতের নির্দেশ অনুসারে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বিষয়টি নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জানা গিয়েছে, ২০২০ সালের মে মাসে লরিতে করে নিয়ে যাওয়ার সময় গাঁজা আটক করে পুলিশ। জিতওয়ারি গ্রামের কাছে তল্লাশি চালিয়ে ৩৮৬ কেজি গাঁজা উদ্ধার হয়েছিল। ভুট্টার মধ্যে লুকিয়ে রাখা হয়েছিল সেই গাঁজা। তিনজনকে ঘটনাস্থল থেকে গ্রেফতারও করে পুলিশ। তাঁদের বিরুদ্ধে এনডিপিএস আইনে মামলা দায়ের করে পুলিশ। সেই গাঁজা প্রমাণ হিসাবে আদালতে পেশ করার নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। তখনই এ কথা জানায় পুলিশ।

এর আগে আটক করা মদ ইঁদুর খেয়ে নিয়েছে বলে আদালতে জানিয়েছিল পুলিশ। উত্তর প্রদেশের এটাওয়া জেলার দেহাত থানায় এ রকম ঘটনা ঘটেছিল। ১৪০০ পেটি ভর্তি মদ, যার দাম প্রায় ৩৫ লক্ষ টাকা। তা ইঁদুর নষ্ট করেছে বলে দাবি ছিল পুলিশের।

সূত্র tv9bangla