Home কুষ্টিয়া কারণ ছাড়া গভীর রাতে কুষ্টিয়া পাসপোর্ট অফিসে পুলিশ 

কারণ ছাড়া গভীর রাতে কুষ্টিয়া পাসপোর্ট অফিসে পুলিশ 

9

কারণ ছাড়া গভীর রাতে কুষ্টিয়া পাসপোর্ট অফিসে পুলিশ

মধ্যে রাতে একজন থানা পুলিশের এসআই এর নেতৃত্বে কয়েকজন পুলিশ সদস্য কোনো অভিযোগ ছাড়া কুষ্টিয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে প্রবেশের চেষ্টা করেন। এসময় অফিসের দায়িত্বে থাকা আনসার সদস্যদের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন তারা।

উর্ধতন কর্মকর্তার কোন অনুমতি দেখাতে পারেননি পুলিশের এসআই। গভীর রাতে কেনো পাসপোর্ট অফিসে প্রবেশ করবেন এমন প্রশ্নও কোন ব্যাখা দিতে চাননি এই পুলিশের এসআই। ওই এসআই এর নাম আব্দুল কাদের। তিনি কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক হিসেবে কর্মরত।

ঘটনাটি মঙ্গলবার (২২ আগষ্ট)দিবাগত রাত দেড়টার দিকে কুষ্টিয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের গেটের সামনে এ ঘটনা ঘটে। তবে গভীর রাতে থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই)’র পাসপোর্ট অফিসে জোরপূর্বক প্রবেশের কারণ সম্পর্কে জানা যায়নি। এতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন দায়িত্বরত আনসার সদস্য ও পাসপোর্ট অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এ নিয়ে নিজেদের নিরাপত্তা চেয়ে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসকের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন কুষ্টিয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক সাজ্জাদ হোসেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, মধ্যে রাতে চলে না এই অফিসের কোন প্রকার কার্যক্রম। তবুও মঙ্গলবার(২২ আগষ্ট ) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে কুষ্টিয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে সাদা পোশাকে প্রবেশের জন্য সেখানে যান কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল কাদের ও অন্য পুলিশ সদস্যরা। গভীর রাতে পাসপোর্ট অফিসে প্রবেশ করতে চাইলে দায়িত্বরত আনসার সদস্যরা তাদের অফিস চলাকালীণ সময়ে আসতে বললে রেগে যান পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল কাদের। এক পযার্য়ে আনসার সদস্য ও পুলিশ সদস্যেদের মধ্যে বাগবিতণ্ডের ঘটনা ঘটে। পাসপোর্ট অফিসের দায়িত্বে থাকা আনসার সদস্য ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দেখে নেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। এই কারণেই নিজেদের নিরাপত্তা চেয়ে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসকের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন কুষ্টিয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক সাজ্জাদ হোসেন।

সিসিটিভির ফুটেজ দেখে পর্যালোচনা করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতেও দাবি জানিয়েছেন তারা।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল কাদের বলেন, রাতে আমি সেখানে গিয়েছিলাম। পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালকের সঙ্গে ঢাকা থেকে একজন ম্যাজিস্ট্রেট কথা বলবেন তাই। পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক সাজ্জাদ হোসেন তার সঙ্গে কথা বলতে রাজি হননি। তবে কারো সাথে বাকবিতণ্ডার ঘটনা ঘটেনি। একটু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল মাত্র।

এ ব্যাপারে কুষ্টিয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক সাজ্জাদ হোসেন বলেন, গভীর রাতে আব্দুল কাদের নামে পুলিশের এক এসআই পাসপোর্ট অফিসে প্রবেশ করতে চাই। অফিসের দায়িত্বরত আনসার সদস্যরা তাকে ঢুকতে না দিলে

আনসার সদস্যের সঙ্গে ওই এসআই বাকবিতণ্ডায় জড়ান। এসময় বিভিন্নভাবে গালিগালাজ করেন।

আনসার সদস্যদেরও দেখে নেওয়ার হুমকি দেয় তিনি। এতে চরমভাবে আমি সহ আনসার সদস্যরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। পাসপোর্ট অধিদপ্তর অধিদপ্তরের মহাপরিচালক স্যারের সঙ্গে কথা বলে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবর কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।

পাসপোর্ট অফিসের ব্যাপারে আমাদের কাছে কোনো অভিযোগ আসেনি। এসআই আব্দুল কাদের কেনো সেখানে গিয়েছে তার সঙ্গে কথা বলে জানাতে পারবো। এ ব্যাপারে পরে কথা হবে বলে জানান কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আশিকুর রহমান।