Home কুষ্টিয়া কুষ্টিয়ায় রাস্তায় পড়ে যাওয়া ফেনসিডিলের বস্তা খুঁজতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক

কুষ্টিয়ায় রাস্তায় পড়ে যাওয়া ফেনসিডিলের বস্তা খুঁজতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক

608

কুষ্টিয়ায় বিশেষ কায়দায় নিয়ে যাওয়া ফেনসিডিল রাস্তায় পড়ে যাওয়ার বস্তা খুঁজতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক

কুষ্টিয়ায় করিমনে বিশেষ কায়দায় নিয়ে যাওয়া ফেনসিডিলের বস্তা পড়ে যাওয়া পর তা খুঁজতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা খেলেন এক মাদক ব্যবসায়ী। পরে ফেনসিডিলসহ তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বটতৈল ইউনিয়নের কবুরহাট উত্তরপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসীরা জানায়,৪ ডিসেম্বর রোববার সকাল ১১টার দিকে একটি করিমনে বিশেষ কায়দায় জিন্সের বস্তায় ফেনসিডিল নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। সুতা দিয়ে বিশেষ কায়দায় করিমনের নিচে বেঁধে রাখা বস্তাটি কবুরহাট উত্তরপাড়া কলমের দোকানের সামনে পড়ে যায়। এ সময় স্থানীয়রা বস্তাটিতে কি আছে দেখার চেষ্টা করে এবং নিশ্চিত হয় বস্তাটিতে ফেনসিডিল রয়েছে। ফোন দেয়া হয় কুষ্টিয়া মডেল থানা ও ৯৯৯ এ।

কিছুক্ষণ পরেই ফেলে যাওয়া ফেনসিডিলের বস্তা খুঁজতে আসেন ওই মাদক ব্যবসায়ী করিমন চালক। এসে মানুষের জটলা দেখে করিমন ঘুরিয়ে দ্রুত পালানোর চেষ্টা করেন। এ সময় সেখানে থাকা এলাকাবাসীরা লাঠিয়াল বাহিনীর সদস্যরা ওই করিমন চালককে ধাওয়া করে এবং প্রায় এ কিলোমিটার দূরে গিয়ে কবুরহাট পারিবারিক স্বাস্থ্য কল্যাণ কেন্দ্রের কাছে তাকে ধরে ফেলে। খবর পেয়ে সেখানে পৌঁছায় স্থানীয় জগতি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আলমগীর হোসেন ও এসআই কামরুজ্জামান। পরে মাদক ব্যবসায়ী যুবককে ফেনসিডিল ও করিমনসহ পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

জিন্সের কাপড়ের বস্তায় বিশেষ কায়দায় রাখা ৩৯ বোতল ফেনসিডিলসহ মোহাম্মদ আলী (২৩) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। সে চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবন নগর থানার শাখারিয়া পিচ মোড় এলাকার আনিচুর রহমানের ছেলে। একই সাথে ফেনসিডিল বহনকারী করিমন জব্দ করা হয়েছে এবং মাদক আইনে তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান জগতি পুলিশ ফাঁড়ির এসআই কামরুজ্জামান।