Home কুষ্টিয়া কুষ্টিয়ার পুরাতন আলফা মোড় এলাকায় সন্ত্রাসী হামলায় একজন গুরুতর আহত অবস্থায় সদর...

কুষ্টিয়ার পুরাতন আলফা মোড় এলাকায় সন্ত্রাসী হামলায় একজন গুরুতর আহত অবস্থায় সদর হাসপাতালে ভর্তি 

59

কুষ্টিয়া শহরের পুরাতন আলফা মোড় এলাকায় সন্ত্রাসী হামলায় একজন গুরুতর আহত সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি:- কুষ্টিয়া শহরের পুরাতন আলফা মোড় এলাকায় সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে, ঘটনার বিবরণে এজাহার সুত্রে জানা যায়,কুষ্টিয়া পৌরসভার ১৮ নং ওয়ার্ডের অন্তর্গত পুরাতন আলফা মোড় এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা মৃত সিরাজ শেখের ছেলে মোঃ টুটুল কে হত্যার উদ্দেশ্যে ১৪ জুন ২০২৪ শুক্রবার সকাল আনুমানিক সারে এগারোটার সময় সন্ত্রাসী ১/মোঃ তন্ময় (১৯) পিতা সদর মালিথা ২/ মোঃ তানভীর (২০)পিতা দেলোয়ার হোসেন আজবাত ৩/মোছাঃ শিউলি খাতুন(৪০) স্বামী মোঃ দেলোয়ার হোসেন আজবাত ৪/মোছাঃ তহুরা খাতুন (৪০)স্বামী মোঃ আক্কাস মালীথা ৫/ মোঃ দেলোয়ার হোসেন আজবাত (৫০)পিতা  মৃত আবুল হোসেন মালিথা ৬/মোছাঃ শান্তি (২৬) পিতা দেলোয়ার হোসেন আজবাত ৭/মোছাঃ বিলকিস (৩০)স্বামী মনির হোসেন সর্বসাং পশ্চিম মজমপুর পুরাতন আলফা মোড় কুষ্টিয়া, আসামী গন পুর্বপরিকল্পিত ভাবে ওৎ পেতে থেকে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা করে প্রাননাশের চেষ্টা করে এসময় টুটুল এর চিৎকারে স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে টুটুল কে রক্ষা করে এবং চিকিৎসার জন্য কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়, টুটুল আহত হয়ে বর্তমানে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে ৯ নং ওয়ার্ডে ভর্তি আছে, কর্তব্যরত চিকিৎসক এর সাথে কথা বলে জানা গেছে টুটুলের মাথায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে ১৫ টা সেলাই করা হয়েছে অবস্থা খুব একটা ভালো না, পর্যবেক্ষনে আছে ৭২ ঘন্টার আগে কিছু বলতে পারছি না। আহত টুটুল এর ছোট ভাই লিটন(৩৫)বলেন আমাদের সাথে জমি জমা সংক্রান্ত গোলযোগ পুর্বে থেকেই ছিল, সেই জেরে আমার ভাই কে হত্যা করতে তারা আমাদের বাড়ি থেকে আলফার মোড়ে যাওয়ার পথের মাঝে  ওৎ পেতে ছিল, আমার বড়ো ভাই বাড়ি থেকে বের হয়ে আলফার মোড়ে যাওয়ার সময় তারা হামলা চালিয়েছে।আহত টুটুল এর ছোট ভাই লিটন বাদী হয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানায় এজাহার দায়ের করেছে, এলাকাবাসী এহেন ন্যাক্কারজনক ঘটনার সুস্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে কঠিন শাস্তির ব্যবস্থা করতে পুলিশ সুপার মহোদয় ও কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্ত্তার আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।