Home কুষ্টিয়া কুষ্টিয়া জেলা কারাগারের দুই কয়েদীর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু 

কুষ্টিয়া জেলা কারাগারের দুই কয়েদীর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু 

11

কুষ্টিয়া জেলা কারাগারের দুই কয়েদীর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু

কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কুষ্টিয়া জেলা কারাগারের দুই কয়েদীর মৃত্যু হয়েছে। মৃতরা হলেন আজমল প্রামাণিক (৫৫) ও আবুল কালাম (৪০)। তাদের মধ্যে আজমল প্রামাণিক মারা যান রাত ১টা ১০ মিনিটের দিকে এবং শুক্রবার ভোর সাড়ে ৬টার দিকে আবুল কালাম মারা যান।

কুষ্টিয়া কারাগারের জেল সুপার আব্দুল বারেক বিষয়টি নতুন টাইমসকে নিশ্চিত করেছেন।

কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, আজমল বৃহস্পতিবার রাতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে কারাগার থেকে তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়।

অপরদিকে ১১ আগষ্ট শুক্রবার ভোরে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়া কালামকে তৎক্ষণাত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রাথমিক অবস্থায় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তাদের মৃত্যু হয়েছে।ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে তাদের মরদেহ। বলে জানান কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার তাপস কুমার সরকার।

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. রফিকুল ইসলাম  নতুন টাইমসকে বলেন, কুষ্টিয়া কারাগারের দুই বন্দী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তারা মারা গেছেন।

আজমল কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের খলিল প্রামাণিকের ছেলে। তিনি একটি হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি। কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে শাজাহান আলী নামে এক ব্যক্তিকে হত্যার দায়ে ২০২২ সালের ৩০ নভেম্বর থেকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডপ্রাপ্ত হয়ে সাজা ভোগ করছিলেন আজমল।

অন্যদিকে আবুল কালাম কুষ্টিয়া শহরের থানাপাড়া এলাকার আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে। তিনি ভ্রাম্যমাণ আদালতে মাদক মামলায় তিন মাসের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ছিলেন। গত ২৮ জুলাই থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে মাদক মামলায় তিন মাসের সাজা পেয়ে কুষ্টিয়া জেলা কারাগারে ছিলেন তিনি।

কুষ্টিয়া জেলা কারাগারের জেল সুপার আব্দুল বারেক নতুন টাইমসকে বলেন, কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে দুইজনের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।