Home কুষ্টিয়া কুষ্টিয়ায় ইউপি সদস্য গুলিবিদ্ধ, সাবেক চেয়ারম্যান গ্রেফতার

কুষ্টিয়ায় ইউপি সদস্য গুলিবিদ্ধ, সাবেক চেয়ারম্যান গ্রেফতার

302

কুষ্টিয়ায় ইউপি সদস্য গুলিবিদ্ধ, সাবেক চেয়ারম্যান গ্রেফতার

আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশ থেকে ফেরার পথে প্রতিপক্ষের হামলায় কুষ্টিয়ার খোকসায় এক ইউপি সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এ ঘটনায় করা মামলার প্রধান আসামি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

১৭ই আগস্ট ২০২২ বুধবার দিবাগত রাত ১০.৩০ মিনিটের দিকে ওসমানপুর ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বর হায়দার আলী (৫০) তার নিজ গ্রাম দেবিনগরে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীদের হামলায় গুলিবিদ্ধ হন।রাতে পুলিশ পাহাড়ায় তাকে কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়।

সাবেক আনসার বাহিনীর সদস্য ছিলেন গুলিবিদ্ধ হায়দার আলী এ সময় হামলাকারীরা আহত মেম্বারের সমর্থক রশিদ ও রেজাউলের বাড়ি ভাঙচুর ও লুটতরাজের ঘটনা ঘটায়।

রাতেই গ্রামে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।ইউপি সদস্যের ওপর হামলার খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

গুলিবিদ্ধ ইউপি সদস্যের ছেলে ইদ্রিস আলী বাদী হয়ে ১৮ আগস্ট বৃহস্পতিবার সকালে খোকসা থানায় একটি হত্যা প্রচেষ্টার মামলা করেন। এ মামলার প্রধান আসামি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমানকে আটক করেছে পুলিশ।

আওয়ামী লীগের একাংশ আয়োজিত সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে অংশ না নেওয়ার বিষয়ে প্রতিপক্ষের নেতাদের মদদপুষ্টরা কয়েকদিন আগে থেকে ইউনিয়নজুড়ে প্রচার করে আসছিল। তাদের নির্দেশ উপেক্ষা করে লোকজন নিয়ে বুধবার বিকালে উপজেলা সদরের হাইস্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত জনসভায় তিনি যোগ দেন।আহত ইউপি সদস্য হায়দার আলী বলেছেন।

১০টার দিকে হেঁটে তিনি বাড়ি ফিরছিলেন। নিজের গ্রাম দেবিনগরে পৌঁছালে প্রতিপক্ষরা তাকে লক্ষ্য করে ৮-৯ রাউন্ড গুলি চালায়। তিনি গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

তার পায়ে বন্দুকের গুলির অসংখ্য স্প্রিন্টার ঢুকে আছে, যা অপারেশন ছাড়া বের করা অসম্ভব। তাই তাকে কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক সাইদুজ্জামান বলেছছেন।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। রাস্তাঘাট ফাঁকা, কোথাও কোনো লোক নেই।কর্তব্যরত পুলিশের এএসআই আব্দুল হাকিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছেন।

ইউপি সদস্য হায়দার আলীর ছেলে বাদী হয়ে মামলা করেছন। সেই মামলার প্রধান আসামি সাবেক চেয়ারম্যান আনিসুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রতিপক্ষ অভিযোগ দিলে মামলা নেওয়া হবে বলেও তিনি জানান। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে।খোকসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আশিকুর রহমান বলেছেন।