Home বাংলাদেশ ঘুমন্ত স্বামীকে গরম পানিতে ঝলসে দিয়ে প্রথম স্ত্রী উধাও

ঘুমন্ত স্বামীকে গরম পানিতে ঝলসে দিয়ে প্রথম স্ত্রী উধাও

80

ঘুমন্ত স্বামীকে গরম পানিতে ঝলসে দিয়ে প্রথম স্ত্রী উধাও

পারিবারিক কলহের জেরে গরম পানি ঢেলে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে ঘুমন্ত স্বামীর মুখ ঝলসে দিয়েছে বলে অভিযোগ প্রথম স্ত্রীর বিরুদ্ধে।

২৯ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সকালে উপজেলার কালামপুর এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে।

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ি থানার ন্যাটামশরা এলাকার মৃত আমজাদ আলীর ছেলে আহত আলামিন মিয়া (৩৩)।

পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ১১ বছর বছর আগে টাঙ্গাইলের গোপালপুর থানার সাজনপুর এলাকার মৃত মোসলেম উদ্দিনের মেয়ে মাফুজা আক্তারকে বিয়ে করেন আলামিন। কিন্তু তিন বছরের সংসারে কলহ লেগেই থাকত। এরই জেরে তার স্ত্রী আলামিনকে ছেড়ে চলে যায়। এরপর জুলেখা পারভিন নামে আরেক নারীর সঙ্গে আলামিনের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরে তাকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। এরপর তিনি ও তার দ্বিতীয় স্ত্রী এবং প্রথম ঘরের সন্তান রাবেয়া ও রিয়ামনি নামে দুই মেয়েকে নিয়ে কালিয়াকৈরের মৌচাক এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস শুরু করছিলেন।

এরই মধ্যে আলামিন আবার প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ ও সংসার শুরু কর। তারা উপজেলার কালামপুর এলাকার কাউসার আলীর বাসায় ভাড়া নিয়ে বসবাস শুরু করেন।

আগের মতো প্রথম স্ত্রীর আবারও শুরু হয় কথা-কাটাকাটি। এর জেরে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ঘুমন্ত স্বামীর মুখে গরম পানি ঢেলে দেন তার স্ত্রী মাফুজা। এতে আলামিনের মুখ ও শরীরের বিভিন্ন অংশ ঝলসে যায়। পরে চিৎকারে আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনার পর মাফুজা বাসা থেকে পালিয়ে যান।আলাামিন পেশায় রাজমিস্ত্রি ও স্ত্রী মাফুজা পোশাক কারখানায় কাজ করতেন।

আমার প্রথম স্ত্রী মোবাইল ফোনে বিভিন্ন ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলতেন। এ জন্য তার মোবাইল ফোন থেকে কয়েকটি নম্বর ডিলেট করে দিয়েছিলাম। এত সে ক্ষিপ্ত হয়ে গরম পানি ঢেলে আমার মুখসহ শরীরের বিভিন্ন অংশ ঝলসে দিয়েছে বলে জানান আহত আলামিন মিয়া।

এ ঘটনায় থানায় এখনও কেউ অভিযোগ করেনি। তবে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকবর আলী খান।