Home বাংলাদেশ টাকা নিয়ে প্রতারণার অভিযোগ নারী ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে 

টাকা নিয়ে প্রতারণার অভিযোগ নারী ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে 

105

টাকা নিয়ে প্রতারণার অভিযোগ নারী ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে

সংরক্ষিত নারী সদস্য নার্গিস আক্তারের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে রাজবাড়ী সদরের চন্দনী ইউনিয়নের সরকারি বরাদ্দের ঘর ও বিভিন্ন ভাতা কার্ড দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে অনেকের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন তিনি। ফলে ধারকর্য করে টাকা দিয়ে এখন বিপাকে পড়েছে দরিদ্র পরিবারগুলো।

ইউনিয়নের সংরক্ষিত নারী সদস্য নার্গিস আক্তার নির্বাচিত হওয়ার দেড় বছর আগে সরকারি বরাদ্দের ঘর আর প্রতিবন্ধী কার্ড দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে প্রায় ৩৩ হাজার টাকা নেন। সেই সময় নার্গিস মহিলা ভাইস চেয়ারপারসনের সাথে চলাফেরা করতেন। কিন্তু দীর্ঘদিনেও ঘর কিংবা প্রতিবন্ধী কার্ড কোনোটিই পায়নি দরিদ্র পরিবারটি।ভুক্তভোগীদের মধ্যে একজন হলেন রাজবাড়ী সদর উপজেলার চন্দনী ইউনিয়নের বাসিন্দা আনোয়ারা বেগম। ভ্যানচালক স্বামীর সামান্য আয়ে শারীরিক প্রতিবন্ধী ছেলেকে নিয়ে কোনো রকমে তার সংসার চলে। পরিবারটির অভিযোগ।

একই অভিযোগ অটোরিকশা চালক ইব্রাহিম মোল্লারও। তার দাবি, ঘর দেয়ার কথা বলে তার কাছ থেকে ২৫ হাজার টাকা নেন নার্গিস। তিনি বলেন, ১ লাখ ৩৫ হাজার টাকার ঘর দেয়ার কথা বলে আমার কাছ থেকে ২৫ হাজার টাকা নিয়েছে নার্গিস। সেই ঘর তো দেয়ইনি, উল্টো টাকা ফেরত চাইলে বিভিন্ন কথা বলে এড়িয়ে যাচ্ছে।

ইউনিয়নের ৩০ থেকে ৪০টি দরিদ্র পরিবারের কাছ থেকে বিভিন্ন অংকের টাকা নেয়ার অভিযোগ আছে জনপ্রতিনিধি নার্গিসের বিরুদ্ধে সরকারি বরাদ্দের ঘর ও বিভিন্ন ভাতা কার্ড দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের বলেন অভিযোগ পাওয়ার পর আমি অনেকবার তাকে ডেকে বিষয়টি সমাধানের জন্য তাগিদ দিই। এতেও তিনি কোনো কর্ণপাত করেননি।ভুক্তভোগীদের অনেকেই আমার কাছে লিখিত অভিযোগও দিয়েছেন।