Home বাংলাদেশ টিকটকে প্রেম করে বিয়ে,তরুণীর আত্মহত্যা ৩ বছরের মাথায়

টিকটকে প্রেম করে বিয়ে,তরুণীর আত্মহত্যা ৩ বছরের মাথায়

9

টিকটকে প্রেম করে বিয়ে,তরুণীর আত্মহত্যা ৩ বছরের মাথায়

মারজাহান আক্তার রিক্তা (২১) নামে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে এক তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরিবারের দাবি, স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের অত্যাচারে তিনি ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

বসুরহাট পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ওয়াজ উদ্দিন ব্যাপারী বাড়িতে শুক্রবার (২০ অক্টোবর) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।আবু নাছেরের মেয়ে নিহত মারজাহান আক্তার রিক্তা। এক বছর বয়সী তার একটি ছেলে রয়েছে।

টিকটকের সূত্রে প্রেম করে তিন বছর আগে পরিবারের অমতে লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ থানার পশ্চিম লতিফপুর গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের ছেলে ফয়সাল মাহমুদকে (২২) বিয়ে করেন রিক্তা। পরে ওই বাড়িতে গিয়ে দেখেন ছেলের কিছুই নেই। এসব নিয়ে কথা বলায় স্বামী, তার মা তাছলিমা বেগম (৪০) ও ননদ পিংকী (২০) রিক্তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতেন। তিনদিন আগে রিক্তা অসহ্য হয়ে আমাদের বাড়ি চলে আসে। শুক্রবার দুপুরে মোবাইলে ভিডিও করে মৃত্যুর জন্য স্বামী, শ্বাশুড়ি ও ননদকে দায়ী করে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে বলে জানান রিক্তার বাবা আবু নাছের।

খবর পেয়ে পুলিশ রিক্তার বাবার বাড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে। তার গায়ে কিছু দিয়ে কাটা বা আঁচড়ের দাগ রয়েছে। মৃত্যুর আগে করা দুই মিনিট ৪৮ সেকেন্ডের একটি ভিডিওসহ তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি জব্দ করা হয়েছে। ভিডিওতে তিনি মৃত্যুর জন্য স্বামী ও তার পরিবারের লোকজনকে দায়ী করেছেন বলে জানান কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রণব চৌধুরী।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রণব চৌধুরী আরও বলেন, এ ঘটনায় তিনজনকে আসামি করে নিহতের বাবা আবু নাছেরের দায়ের করা অভিযোগটি আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা হিসেবে রুজু করা হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যার নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।