Home বাংলাদেশ ডাকাতদের হাত থেকে রক্ষা পেতে পদ্মা নদীতে ঝাঁপ দেওয়া দুলাল পালের দুই...

ডাকাতদের হাত থেকে রক্ষা পেতে পদ্মা নদীতে ঝাঁপ দেওয়া দুলাল পালের দুই দিন পর লাশ উদ্ধার

6

ডাকাতদের হাত থেকে রক্ষা পেতে পদ্মা নদীতে ঝাঁপ দেওয়া দুলাল পালের দুই দিন পর লাশ উদ্ধার

ডাকাতদের হাত থেকে রক্ষা পেতে পদ্মা নদীতে ঝাঁপ দেয় গরু ব্যবসায়ী দুলাল পাল। তবুও শেষ রক্ষা হয়নি। তার কাছে থাকা টাকা খোয়া গেছে, সঙ্গে প্রাণটিও গেছে। বৃহস্পতিবার (৪ মে) বিকেলে পদ্মা নদীর মানিকগঞ্জের হরিরামপুর এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে নৌপুলিশ। তিনি রাজবাড়ী সদর উপজেলার বানিবহ গ্রামের অনিল পালের ছেলে।

এর আগে গত ২মে বেলা তিনটার দিকে পদ্মা নদীর দৌলতদিয়া-আরিচা নৌরুটে ইঞ্জিনচালিত ট্রালারে দিন-দুপুরে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এতে ডাকাতরা ৭০/৭৫ জন গরু ব্যবসায়ী কাছ থেকে অন্তত কোটি টাকা লুটে নেয়।

নৌ-পুলিশ সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার (৪ মে) বিকাল ৩টার দিকে পদ্মা নদীর মানিকগঞ্জ জেলার হরিরামপুর উপজেলার বাদলপুর চর এলাকা থেকে ভাসমান অবস্থায় স্থানীয়রা লাশটি দেখতে পেয়ে নৌ-পুলিশকে খবর দেয়। পরে নৌপুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

মঙ্গলবার বিকাল ৩টার দিকে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাট থেকে ট্রলারে করে সব ব্যবসায়ী দৌলতদিয়ার দিকে আসছিলেন। দৌলতদিয়া ৬ নম্বর ফেরি ঘাটের অদূরে স্পিড বোটে ১৫-২০ জনের মুখোশধারী ডাকাত দল এসে সবাইকে মারধর করে টাকা লুটপাট করে নিয়ে যায়। দুলাল পাল তিনটি গরু বিক্রির টাকা ও জীবন রক্ষা করতে নদীতে ঝাঁপ দিলে নিখোঁজ হন। নদীতে ঝাঁপ দেয়ার সময় তার ভাইয়ের কোমরে টাকা ছিল, কিন্তু লাশ উদ্ধারের সময় দেখা যায় তার কোমরে অস্ত্রের আঘাত রয়েছে এবং কোমরে টাকা নেই বলে জানান মরদেহ শনাক্ত করে নিহত দুলাল পালের ভাই অনুকুল পাল।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার দিবাগত রাতে এই ডাকাতির সঙ্গে জড়িত সাত জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে ডাকাতির নগদ ৩৪ লাখ ৬১ হাজার ৮৪২ টাকা উদ্ধার এবং তাদের ব্যবহৃত স্পিড বোট তল্লাশী করে দেশিয় আগ্নেয়াস্ত্র চারটি, গুলি ১১ রাউন্ড, কাটার একটি ও ৯টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

ডাকাতের ভয়ে নদীতে ঝাঁপ দেয়া গরু ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে বলে জানান দৌলতদিয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ওসি জেএম সিরাজুল কবির ।