Home বাংলাদেশ ডেঙ্গুতে মারা গেলেন আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা সিনিয়র সহকারী সচিব

ডেঙ্গুতে মারা গেলেন আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা সিনিয়র সহকারী সচিব

8

ডেঙ্গুতে মারা গেলেন আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা সিনিয়র সহকারী সচিব

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মঙ্গলবার (২৫ জুলাই) সকালে মারা গেলেন সিনিয়র সহকারী সচিব এস. এম নাজিয়া সুলতানা। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

গেল দুদিন আগে তিনি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর বারডেম হাসপাতালে ভর্তি হয়ে ছিলেন।

৩০তম বিসিএস-এর মেধাবী এই কর্মকর্তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি ও সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ। সেই সঙ্গে মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

এক শোকবার্তায় বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, নাজিয়া সুলতানা অত্যন্ত মেধাবী ও চৌকস কর্মকর্তা ছিলেন।

সিনিয়র সচিব তার শোকবার্তায় বলেন, নাজিয়া সুলতানা ছিলেন একজন দক্ষ ও কর্তব্যপরায়ণ কর্মকর্তা। বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসে তার অবদান স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

ডেঙ্গুতে সারাদেশে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে রোববার (২৩ জুলাই) থেকে সোমবার (২৪ জুলাই) ২৪ ঘণ্টায়। এতে মশাবাহী রোগটিতে এ বছর এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮৫ জনে। একই সময়ে নতুন করে ২ হাজার ২৯৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এ নিয়ে চলতি বছর এখন পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৫ হাজার ২৭০ জনে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমারজেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের ইনচার্জ ডা. মো. জাহিদুল ইসলাম
সোমবার (২৪ জুলাই) স্বাক্ষরিত ডেঙ্গুবিষয়ক সর্বশেষ প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গেল ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে নতুন করে আরও ২ হাজার ২৯৩ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। নতুন ভর্তি হওয়া রোগীদের মধ্যে ১ হাজার ২৩৮ জন ঢাকায় চিকিৎসাধীন। বাকি ১ হাজার ৫৫ জন রাজধানীর বাইরে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এই সময়ে নতুন করে আরও ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৮৫ জনে।

আক্রান্তদের মধ্যে হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৭ হাজার ৬২২ জন। ঢাকায় ১৬ হাজার ৬৪৪ এবং ঢাকার বাইরে ১০ হাজার ৯৭৮ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

বর্তমানে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সর্বমোট ৭ হাজার ৪৬৩ জন ভর্তি আছেন। তাদের মধ্যে ঢাকার ৫৩টি ডেঙ্গু ডেডিকেটেড হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন ৪ হাজার ৩৯৫ জন। এ ছাড়া ঢাকার বাইরে ৩ হাজার ৬৮ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন।