Home বাংলাদেশ বিএনপি করায় স্বামীকে তালাক দিলেন স্ত্রী,থানায় সাধারণ ডায়েরি 

বিএনপি করায় স্বামীকে তালাক দিলেন স্ত্রী,থানায় সাধারণ ডায়েরি 

7

বিএনপি করায় স্বামীকে তালাক দিলেন স্ত্রী,থানায় সাধারণ ডায়েরি

বিএনপি করায় স্বামীকে তালাক দিলেন স্ত্রী,থানায় সাধারণ ডায়েরি 

বিএনপি করায় স্বামীকে তালাক দিলেন স্ত্রী, থানায় জিডি

সাভারে বিএনপির সমর্থক দাবি করে ও নির্যাতনের অভিযোগ তুলে স্বামীর বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন স্ত্রী।

এসব কারণে ২০ বছরের সংসারের ইতি টেনে অবশেষে স্বামী ফরহাদ মিয়া (৫৫) কে তালাকের নোটিশ পাঠিয়েছেন বলেও জানান দুই সন্তানের জননী রহিমা বেগম (৪৩)।

ভুক্তভোগী রহিমা বেগম সাভার উপজেলার তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের হেমায়েতপুরের মো. শাহজাহানের মেয়ে। অভিযুক্ত ফরহাদ মিয়া (৫৫) মানিকগঞ্জের সিংগাইর থানার খাসিরচর গ্রামের মৃত মোতালেব মিয়ার ছেলে। বর্তমানে তিনি সাভারের তেঁতুলঝোড়া এলাকায় বসবাস করছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রহিমা বেগম আগে সাভারের আড়াপাড়ায় বসবাস করতেন। তখন তিনি পুলিশের সোর্স হিসেবে কাজ করতেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আড়াপাড়ার এক বাসিন্দা বলেন, ওই নারী অনেক দিন আগে আড়াপাড়ায় বসবাস করতেন। তখন তিনি পুলিশের সোর্স হিসেবে কাজ করতেন। এলাকাবাসীর বিভিন্ন ধরনের ক্ষতি করলে আড়াপাড়া থেকে তাকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে মানিকগঞ্জের সিংগাইরের ধল্লা এলাকার খাসিরচর গ্রামে স্বামীর বাড়িতে বসবাস শুরু করেন। সেখানে তিনি বিভিন্ন মানুষের সঙ্গে ঝগড়া করতেন।

রহিমা বেগম বলেন, আমার স্বামী ফরহাদ বিএনপির মিছিলে যায়।তার লাইগা আমি তারে ডিভোর্স দিলাম। আমি আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান। আমার বাবা মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন, আওয়ামী লীগ করতেন তিনি। আমি এই কারণে তাকে (স্বামী) ডিভোর্স দিয়ে দিলাম। তার সঙ্গে আমি সংসার করব না। আমার ওপর অনেক নির্যাতন, অত্যাচার করেছে সে। আমাকে প্রচুর মারধর করেছে। বিএনপির মিছিলে যাইতে মানা করছি দেখে এমন অত্যাচার করছে।

তবে এ বিষয়ে ভুক্তভোগীর স্বামী ফরহাদ মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

সাভার মডেল থানার পরিদর্শক দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, রহিমা বেগম তার স্বামীর বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগে সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

স্বামী বিএনপি করার কারণে তাকে ডিভোর্স দেওয়া হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাইরে ওই নারী কি বক্তব্য দিয়েছে তা জানি না। তিনি নির্যাতনের জন্য সাধারণ ডায়েরি করেছেন। এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ভুক্তভোগী জানিয়েছেন, তার স্বামী বিএনপি সমর্থক, তিনি নেশা করেন এবং নেশার টাকা না পেলে স্ত্রীকে মারধর করতেন। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী মহিলা পুলিশ সুপারের কাছে গিয়েছিলেন। এঘটনায় ওই নারী আজ থানায় একটি জিডি করেছেন। ঘটনাটি হেমায়েতপুর পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বরত কর্মকর্তাকে তদন্ত করার জন্য ওসি স্যার নির্দেশ দিয়েছেন। পরবর্তীতে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান সাভার মডেল থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শিকদার হারুন অর রশিদ।