Home কুষ্টিয়া মেডিকেলে চান্স না পেয়ে কুষ্টিয়ায় প্রাণ দিলেন শিক্ষার্থী!

মেডিকেলে চান্স না পেয়ে কুষ্টিয়ায় প্রাণ দিলেন শিক্ষার্থী!

15

মেডিকেলে চান্স না পেয়ে কুষ্টিয়ায় প্রাণ দিলেন শিক্ষার্থী!

এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পেয়েও মেডিকেলে ভর্তি হতে না পেরে কুষ্টিয়ার মিরপুরে নিজ রুমে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে হাফসা খাতুন (১৯) নামে এক শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে। নিহত হাফসা খাতুন কুষ্টিয়া মিরপুর উপজেলার বারুইপাড়া ইউনিয়নের চারমাইল তাতীবন্ধ এলাকার ইদ্রিস মন্ডলের মেয়ে।

কুষ্টিয়ার মিরপুরের বারুইপাড়া ইউনিয়নের চারমাইল তাতীবন্ধ এলাকায় রবিবার (১৪ মে) সন্ধ্যা ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আমার মেয়েটি কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পেয়েছে। এর আগেও এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পেয়েছে। ছোটবেলা থেকেই মেয়ের স্বপ্ন ছিল ডাক্তার হবে। এবার মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষা দিয়েছিল। পরে অকৃতকার্য হওয়াতে কয়েকদিন ধরে মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে। চান্স না পাওয়ার পর থেকে সে মানসিক অস্থিরতায় ছিল। এজন্যই সে তার রুমের সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনা বুঝতে পারলে আমি মেয়েকে ছাড়া থাকতাম না বলে জানান নিহতের মা সিমা খাতুন।

নিহত ওই শিক্ষার্থী হাফসা খাতুনসহ তার দুই বান্ধবী মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষা দিয়েছিল। তার দুই বান্ধবীর চান্স হলেও হাফসা খাতুনের চান্স না হওয়ায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে মেয়েটি বলে জানান এ কারণেই সে আজ গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি বলে জানান কুষ্টিয়ার মিরপুরের বারুইপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম মন্টু।

মেয়েটির মরদেহ কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান কুষ্টিয়ার মিরপুর থানার (ওসি) রফিকুল ইসলাম।