Home বাংলাদেশ সরকারি গাড়িতে মাদক বহন: উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী ফেরদৌসী বেগম বরখাস্ত 

সরকারি গাড়িতে মাদক বহন: উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী ফেরদৌসী বেগম বরখাস্ত 

188

সরকারি গাড়িতে মাদক বহন: গাজীপুরের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী ফেরদৌসী বেগম বরখাস্ত

গাজীপুর সড়ক উপ-বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মোসা. ফেরদৌসী বেগমকে সরকারি গাড়িতে ফেন্সিডিল বহনের অভিযোগে বরখাস্ত করা হয়েছে। এ বিষয়ে ২২ আগস্ট সোমবার সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এ বিএম আমিন উল্লাহ নুরী স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপন জারি করে এ তথ্য জানানো হয়।

গাজীপুরের সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর নামে রেজিস্ট্রেশনকৃত গাড়িতে ১৩১ বোতল ফেনসিডিল বহকালে গত ১৯ আগস্ট শুক্রবার ২০২২ কুমিল্লা জেলায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্তৃক গাড়িটি জব্দ করা হয়। আটককৃত গাড়িটি উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মোসা. ফেরদৌসী বেগম গাজীপুর সড়ক উপ-বিভাগে সরকারি বাহন হিসেবে ব্যবহার করেন।জারিকৃত প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

অনুমতি ব্যতীত জেলার বাইরে গাড়ি চালানোর বিষয়টি এ পর্যন্ত কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়নি। গাজীপুরের নির্বাহী প্রকৌশলীর কাছে টেলিফোনে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি এর সত্যতা স্বীকার করেন। এতে উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মোসা. ফেরদৌসী বেগম এ ঘটনার সাথে জড়িত রয়েছেন বলে প্রতীয়মান হয়। যা সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা ২০১৮ এর ২ (খ) অনুযায়ী অসদাচরণের সামিল। তার এ অপরাধ তদন্ত শেষে প্রমাণিত হলে ৩(খ) ও ৪(৩) অনুযায়ী তিনি গুরুদণ্ড আরোপযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।

সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা ২০১৮ এর ১২ (১) এর বিধি মোতাবেক মোসা. ফেরদৌসী বেগমকে চাকরি থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো। সাময়িক বরখাস্তকালীন সময়ে প্রচলিত বিধি মোতাবেক তিনি খোরাকি ভাতা প্রাপ্য হবেন বলে প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়েছে।

এছাড়া একই দিন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপ-সচিব মোহাম্মদ শের মাহমুদ মুরাদ স্বাক্ষরিত একটি পত্রে বলা হয়েছে, কর্মস্থলের বাইরে কুমিল্লা জেলায় মাদক বহনকালে নিয়ন্ত্রণাধীন সরকারি গাড়ি ও তার চালক আটক হওয়ায় সংশ্লিষ্ট অফিসের প্রধান হিসেবে নির্বাহী প্রকৌশলীর দায়িত্ব পালনে তিনি ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছেন। এমতাবস্থায় সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা, ২০১৮ অনুযায়ী কর্তব্য পালনে অবহেলার কারণে ২(খ) অনুযায়ী অসদাচরণের অভিযোগে কেনো তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে না, এ জন্য আগামী সাত দিনের মধ্যে যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

গাজীপুরের সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর নামে রেজিস্ট্রেশনকৃত গাড়িতে ১৩১ বোতল ফেনসিডিলসহ গত ১৯ আগস্ট কুমিল্লা জেলায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্তৃক গাড়িটি আটক হয়। গাড়িটির চালক মো. খোকন আহমেদ কুমিল্লায় সরকারি গাড়িটিতে মাদক বহনকালে আটক হন। ওই গাড়ি চালক সরকারি কর্মচারী নন। তিনি শ্রমিক মজুরি কোডে নিয়োজিত আছেন। এমতাবস্থায় শ্রমিক মজুরি কোডে নিয়োজিত মো. খোকন আহমেদকে অপসারণ ও তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বলা হয়েছে।সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপ-সচিব মোহাম্মদ শের মাহমুদ মুরাদ স্বাক্ষরিত অপর একটি পত্রে বলা হয়েছে।